মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

মাসিক কর্মসূচী

                             বাবুগঞ্জ উপজেলার  জানুয়ারি ২০১৪-এর উপজেলা পরিষদ সভার কার্যবিবরণী-

সভাপতি   ঃ  জনাব সরদার মোঃ খালেদ হোসেন স্বপন

                চেয়ারম্যান

                উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

সভার স্থান ঃ  উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষ, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

তারিখ      ঃ ২৫/০১/২০১৪ খ্রিঃ ;  সময়ঃ ১১.৩০ মিঃ।

 

                          (সভায় উপস্থিত/অনুপস্থিত সদস্যগণের নামের তালিকা পরিশিষ্ট ‘ক’-তে দেখানো হলো।) 

       

       উপজেলা পরিষদ সভায় উপস্থিত মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় জনাব রাশেদ খান মেনন ও মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব টিপু সুলতান খানসহ সকলকে স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয় এবং সভার সভাপতি  উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব সুলতান আহমেদ খান সভা পরিচালনার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অনুরোধ করেন। অতঃপর বিগত সভার কার্যবিবরণী সভায় পাঠ করে শুনান হয় এবং সর্বসম্মতিক্রমে দৃঢ়ীকরণ করা হয়। অতঃপর উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন বিভাগের কার্যক্রম আলোচনাক্রমে সিদ্ধান্ত  গৃহীত হয়।

  বিভাগ

                                  আলোচনা

     সিদ্ধান্ত                     

 বাস্তবায়ন

প্রকৌশলী

বিভাগ

       উপজেলা প্রকৌশলী সভায় বলেন চলতি অর্থ বছরে এডিপির ১ম ও ২য় কিস্তির ২টি  বরাদ্দ এসেছে। ৩য় কিস্তির বরাদ্দ পাওয়া যায়নি। তবে খুব শীঘ্রই পাওয়া যাবে মর্মে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি আরো বলেন বর্ষা মৌসুমের পূর্বেই এডিপি প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন করার লক্ষ্যে জরুরীভাবে ০৩টি কিস্তির বরাদ্দের অর্থ ধরে প্রকল্প গ্রহণপূর্বক তালিকা অনুমোদন ও বাস্তবায়নের নিমিত্তে সভায় উপস্থাপন করার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানদেরকে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়।

 

      এডিপির বরাদ্দ সম্পর্কে আলোচনাকালে  ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানগণ  বলেন (ডিসেম্বর ২০১৩ মাসের সভার) কার্যবিবরণীতে এডিপির অর্থে বাস্তবায়নের জন্য যে সকল প্রকল্প উঠানো হয়েছে সে সম্পর্কে তাঁরা অবহিত নহেন। তাই এবিষয়ে মাননীয়  এমপি মহোদয়ের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধামত নেয়ার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানগণ একমত পোষন করেন।

 

      তিনি বলেন কেদারপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের নিকট ৮/২/২০১৪ খ্রিঃ তারিখে একখানা আবেদন করেন। আবেদনে কেদারপুর এলাকায় উপজেলা ১%ভূমি রাজস্ব খাতের অর্থায়নে ১৫(খ)১৩-১৪ নং গ্রুপের কাজের নাম পূর্বভূতেরদিয়া সাইফুর রহমান মাস্টারের বাড়ীর উত্তর পার্শ্বে বক্র্ কালভার্ট নির্মাণের জন্য প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। ইতোমধ্যে উক্ত স্থানে একটি কালভার্ট নির্মাণ হওয়ায় উক্ত স্থানের পরিবর্তে পূ্র্বভূতেরদিয়া সাইফুর রহমান (সাইদুর) মাস্টারের বাড়ীর দক্ষিণ পার্শ্বে ঘেরের উপর বক্স্র কালভার্টটি নির্মাণের প্রস্তাব রাখেন।

 

 

 

 

 

 

 

উত্তেলিত প্রকল্প নিয়ে    মাননীয় এমপি মহোদয়ের নেতৃত্বে আলোচনার মাধ্যমে  সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

 

 

উক্ত প্রস্তাব সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

উপজেলা প্রকৌশলী

বাবুগঞ্জ

 

ম্বাস্থ্য বিভাগ

    উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা মোঃ ফকরুল আলম, সভায় বলেন  মার্তৃত্ব মৃত্যু হার আগের চেয়ে অনেক কমেছে। মানুষের গড় আয়ু ৪৫ বছর থেকে ৬৯.৫ বছরে উন্নীত হয়েছে। তিনি আরো বলেন দেহেরগতি (সাব সেন্টার) স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এর জমি জেলা পরিষদ লীজ দিয়েছে। যার জন্য জমি কমে একেবারে ছোট হয়ে গেছে।তিনি জানানবাহেরচর হাসপাতালে মোট ০৯জন ডাক্তারের পদ রয়েছে। এর মধ্যে কর্তব্যরত ০৬ জন ডাক্তার আছেন । ০৩টি পদ শূন্য রয়েছে।

    চেয়ারম্যান, ৩নং দেহেরগতি ইউপি সভায় বলেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তাকে নিয়ে বর্তমানে মোট ০৬জন তাঁরা ডেপুটেশনে থাকেন। ডাক্তার মূলত আসেন না, থাকেন না। মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় জনাব রাশেদ খান মেনন-এর বাড়ীর দরজায় বাহেরচর হাসপাতালটি তাই সার্বক্ষণিক ডাক্তার রাখার জন্য তিনি মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট অনুরোধ জানান।

 উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা বলেন রোগীদের জন্য ওয়াসরুম ভাল নেই, পাম্প ভেযে্গ গেছে। এক্সে মেশিন অকেজো। টেকনোলজি নেই। রক্ত পরীক্ষা করার টেকনোলজি নেই। এম্বুলেন্স ১টি আছে। তেমন ভাল নেই।সার্বক্ষণিক ডাক্তার রাখা সহ এক্সে মেশিন, টেকনোলজি ও রক্ত পরীক্ষা করার টেকনোলজি পদায়ন এবং ভালমানের ১টি এম্বুলেন্স সরবরাহের জন্য অনুরোধ করা হয়।

এব্যাপারে মেইন্টেন্সে প্রকৌশলীকে অবহিত করার  সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

প্রানিসম্পদ বিভাগ

    সভায় উপজেলা প্রানিসম্পদ কর্মকর্তা বলেন এ বিভাগের কার্যক্রম  সুষ্ঠুভাবে চলছে। তিনি জানান গবাদি প্রাণির কৃত্রিম প্রজননের সংখ্যা ২০২ টি। টিকা দেয়া হয়েছে ১১২টি গবাদি প্রাণিকে এবং টীকা দেয়া হয়েছে ৪৩টি হাঁস ও ১০০টি মুরগীকে।

 বিভাগীয় কার্যক্রমে আরো তৎপর হওয়ার জন্য পরামর্শ দেয়া হলো

প্রানিসম্পদ কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

 

উপজেলা কৃষি বিভাগ

   উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সভায় বলেন কৃষিবান্দব সুসমভাবে সার বৃদ্ধি পেয়েছে।  ৭২% কৃষকরা এখন দেড় হাজার মেঃ টন টিএসপি, পটাশ সার ব্যবহার করছে।  সারের দাম কমের ফলে সুসম সার ব্যবহার করা গেছে। ফলে আমনের ফলন ভাল  বাবুগঞ্জে এবছর ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। এছাড়া রবি শস্যের সার্বিক ফলনও ভাল হয়েছে। অনেক পাকা ড্রেনের মাধ্যমে সেচনালা করা হলে বোরোচাষের জন্য আরো এলাকা বাড়ানো সম্ভব হবে। আগের সেই খালগুলি ভরাট হয়ে গেছে। উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাল খনন প্রকল্পের মাধ্যমে যে খালগুলো খনন করাচ্ছেন তা যথেষ্ট নয়। আরো খাল খনন করা হলে আরো অনেক সফলতা অর্জন করা সম্ভব হবে মর্মে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি আরো বলেন পরিবেশ-এর ভারসাম্য রক্ষার জন্য নিম ব্যবহারের জন্য চাষীদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

 এব্যাপারে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের হস্তক্ষেপ এবং সহযোগিতা কামনা করা হয়।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

মৎস্য বিভাগ

   উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সভায় বলেন  তাঁর বিভাগের কার্যক্রম যথাযথভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই।

    ----

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

সমাজসেবা বিভাগ

   উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা বলেন তাঁর বিভাগের কাজকর্ম সুষ্ঠুভাবে চলছে। বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধীভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, বয়স্কভাতাসহ অন্যান্য ভাতার বাড়তি ভাতা প্রদানের তালিকা দাখিলের জন্য ইউপি চেয়ারম্যানদেরকে অনুরোধ করা হয়। সকল প্রকার ভাতাদি গ্রহণের ক্ষেত্রে  গ্রহীতাদের সুবিধার্থে নিজ নিজ ইউনিয়নে অথবা পার্শ্ববর্তী ইউনিয়নের ব্যাংক থেকে প্রদানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দেহেরগতি, কেদারপুর ও মাধবপাশা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানগণ সভায় প্রস্তাব রাখা হয়।

এছাড়াও দলিত সম্প্রদায়দের জন্য নতুনভাবে ভাতা প্রদান করা হবে। এব্যাপারে কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য কার্যক্রম  যথাযথভাবে চলছে।

সকল প্রকার  ভাতা গ্রহীতাদের সুবিধার্থে নিজ নিজ এলাকার ব্যাংক সমূহথেকে ভাতাদি প্রদানের ব্যবস্থা সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

শিক্ষা বিভাগ

 

   উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সভায় বলেন তাঁর কার্যালয়ের কাজকর্ম  যথাযথভাবে চলছে। এছাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। বিদ্যালয়ে রীতিমত ক্লাস শুরু হয়েছে। বর্তমানে বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শেষ হয়েছে। উপজেলা পর্যায়ের ক্রীড়া অনুষ্ঠান চলমান।

       ----

উপজেলা শিক্ষা

কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগ

     উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সভায় বলেন তাঁর কার্যালয়ের কাজকর্ম স্বাভাবিকভাবে চলছে। বিদ্যালয়ে রীতিমত ক্লাস শুরু হয়েছে। বর্তমানে বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা চলছে।

       ----

উপজেলা মাধ্যমিকশিক্ষা কর্মকর্তা বাবুগঞ্জ

সমবায় বিভাগ

   উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা বলেন তাঁর কার্যালয়ের কাজকর্ম  স্বাভাবিকগতিতে চলছে। চাঁদপাশা ইউনিয়নে দুগ্ধ সমবায় সমিতি গঠনের কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে। কেদারপুর,দেহেরগতি ও আগরপুর ইউনিয়নে গাভী পালন বেশী গওয়ায় ঐ সকল ইউনিয়নে পর্যায়ক্রমে এ প্রকল্প বিস্তৃত করা হবে মর্মে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যন সভায় বলেন।

       ----

 

উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

পরিসংখ্যান

বিভাগ

  উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা সভায় বলেন তাঁর বিভাগের কার্যক্রম ভালভাবে চলছে।

       ----

উপজেলা পরিসং কর্মকর্তা

পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ

 

 উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সভায় জানান যে এ উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রম সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে। তবে মাঠপর্যায়ে মাঠকর্মীদের মধ্যে অবসরে ০৮জন অছেন এদের ছাড়াই কার্যক্রম ভাল হয়েছে। ০৪ জন পাওয়া গেছে। এখন আরো ভাল হবে মর্মে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। জানুয়ারী মাসের আশ্রয়ন প্রকল্পের পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচির মাসিক প্রতিবেদন নিম্নরূপ-

ব্যারাক সংখ্যা

হাউজের সংখ্যা

জন

সংখ্যা

দম্পতি

সংখ্যা

স্থায়ী পদ্ধতি

অস্থায়ী পদ্ধতি

ইমপ্লান্ট

কনডম

সুখী

মোট

পুরুষ

মহিলা

মোট

ইনজেকশন

কপারটি

০৮

৮০

১১৭

২০

০১

-

০১

০৯

-

০৬

১৮

 

        ---

 

 

 

 

 

 

  

 

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

পল্লীউন্নয়ন বিভাগ

  উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা বলেন বি আর ডিবির কার্যক্রম ও একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্পের কার্যক্রম সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে। বিতরণকৃত ঋণের অর্থ সমেতাষজনকভাবে আদায় হচ্ছে।

 

       ---

উপজেলা পল্লীউন্নয়ন কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

যুব উন্নয়ন বিভাগ

 

  উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সভায় বলেন তাঁর বিভাগীয় কার্যক্রম ভালভাবে হচ্ছে। বিতরণকৃত ঋণের আদায়ের পরিমান সমেতাষজনক।

       ---

উপজেলা  যুব উন্নয়নকর্মকর্তা,

বাবুগঞ্জ

ত্রাণ বিভাগ

 

 মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় জনাব রাশেদ খান মেনন বাবুগঞ্জ উপজেলার টি আর, কাবিখা, কাবিটা ও ব্রীজ কালভার্টের অবস্থা সম্পর্কে জানতে চান। সে আলোকে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা  বলেন টি আর ১ম ও ২য় পর্যায় (বিশেষ)-এর ডিও ছাড় করা হয়েছে। ব্রীজ কালভার্টের টেন্ডার হয়েছে। ব্রীজ কালভার্টের  টেন্ডার হয়েছে। কাবিকা বিশেষ ১ম পর্যায়ের ডিও ছাড় করার প্রক্রিয়া চলছে। কিন্তু ২য় পর্যায়ের বরাদ্দ পাওয়া যায়নি। পাওয়া সাপেক্ষে বর্তমান পরিস্থিতির উপর বিবেচনা করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এছাড়া সাধারণ কাবিখা বরাদ্দ ইউনিয়ন অনুসারে বিভাজন করে পত্র দেয়া হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তালিকা পাওয়া মাত্র দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে মর্মে তিনি বলেন।

    ইউনিয়ন পরিষদ থেকে দ্রুত তালিকা  প্রদানের  জন্য চেয়ারম্যানদেরকে অনুরোধ করেন।

উপজেলা প্রকল্প

বাস্তবায়ন, কর্মকর্তা

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর

  উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বলেন  ভিজিডি বরাদ্দ পাওয়া গেছে। আগামী মাস থেকে বিতরণ কার্যক্রম শুরু হবে। এছাড়া এ উপজেলা মোট ৩৩টি মহিলা সমিতি রয়েছে। অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে।

        ---

উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর

   উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য) প্রকৌশলী সভায় বলেন তাঁর বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে। গত অর্থ বছরের বরাদ্দকৃত নলকূপ  ৩০ জুন ২০১৩ এর পূর্বেই সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে ২০টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গভীরনলকূপ স্থাপনের কাজ চলছে।

        ---

উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য)

বাবুগঞ্জ।

বন বিভাগ

 

  ফরেষ্টার, বনবিভাগ সভায় বলেন  তাঁর দপ্তরের কাজকর্ম ভালভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই।

       ---

ফরেষ্টার বনবিভাগ বাবুগঞ্জ

বিবিধ

    চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ ১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের নিমিত্তে অনুমোদনের জন্য নিম্নলিখিত প্রকল্পসমূহ সভায় উপস্থাপন করেন।

 

১। চাঁদপাশা মোঃ হানিফ মৃধা পিতা- আঃ কাদের মৃধা সাং- বকশিরচর-এর বাড়ীতে

     গভীর নলকহপ স্থাপন। 

 

২। উত্তর রহমতপুর  মোঃ ইউনুচ (অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ) পিতা-আঃ জববার হাওলাদার-

     এর বাড়ীতে গভীর নলকহপ স্থাপন। 

 

৩। রাকুদিয়া কবির হাওলাদার- এর বাড়ীর সামনে কালভার্ট নির্মাণ।

     টাকা- ৫০,০০০/-

 

   উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ ১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের নিমিত্তে অনুমোদনের জন্য নিম্নলিখিত প্রকল্পসমূহ সভায় উপস্থাপন করেন।

 

১। মোঃ ফরিদউদ্দিন মাস্টারের বাড়ীতে গভীর নলকহপ স্থাপন। টাকা-৬০,০০০/-

 

২। চাঁদপাশা ডিক্রিরচর নাদের আলী বাড়ীর সামনে খালের উপর ব্রিজ নির্মাণ।

     টাকা-৮০,০০০/-

 

৩। খানপুরা মোঃ আলাউদ্দিন পিতা- আঃ খালেক আকন-এর নতুন বাড়ীতে গভীর   

     নলকহপ স্থাপন। টাকা-৬০,০০০/-

 

৪। দক্ষিণ ভূতেরদিয়া লতিফ হাওলাদার বাড়ীর ঈদগা মাঠ সংস্কার-৩০,০০০/-

 

৫। মাধবপাশা ইউনিয়নের পশ্চিম লাফাদি গ্রামের আবদুল কাদের সিকদার বাড়ীর

     সামনের রাসত্মায় ইটের সলিং করন।

 

     উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ

১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের নিমিত্তে অনুমোদনের জন্য নিম্নলিখিত প্রকল্প সভায় উপস্থাপন করেন।

 

১। অর্জুনমাঝি সহিদুল ইসলামের বাড়ীর সামনে খালের উপর ব্রীজ নির্মাণ।

     টাকা ১,০০,০০০/-

 

সংশোধনী-

১। চাঁদপাশা ইউনিয়নে ডিক্রিরচর দেলোয়ার হোসেন (জেলা প্রশাসক, মেহেরপুর)-এর বাড়ীর কাছে জোড়াবাড়ী খালের উপর ইউনিয়ন পরিষদের ব্রীজটি বিএডিসি কর্তৃক করা হবে বিধায় ব্রীজটি অপসারনের জন্য অনুরোধ করা হলো।

 

২। পূর্ববর্তী কার্যবিবরণীর সংশোধনী পূর্বক চাঁদপাশা শাসছুল হক পিতা-আইনউদ্দিন হাওলাদার-এর বাড়ীতে গভীর নলকূপ স্থাপন- টাকা- ৬০,০০০/-

 

৩। উত্তর রহমতপুর  মোঃ সোহেল পিতা- মোঃ আলী হোসেন-এর বাড়ীতে গভীর

 নলকূপ স্থাপন। টাকা-৬০,০০০/-

 

৪। মাধবপাশা ইউনিয়নে গজালিয়া আঃ ছোবাহান হাওলাদারের বাড়ীর উত্তর পার্শ্বে

বক্সকালভার্ট নির্মাণ। টাকা ৪০,০০০/- টাকার স্থলে সংশোধন পূর্বক ৫০,০০০/-   
প্রদান।

 

৫। বুলু হাওলাদার পিতা-আদম আলী হাওলাদার পশ্চিম রাজগুরু এর বাড়ীতে গভীর নলকূপ স্থাপন। টাকা-৬০,০০০/-

 

৬। লোহালিয়া গ্রামের মৌরসীয়া পারভীন-এর বাড়ীতে গভীর নলকূপ স্থাপন।

টাকা-৬০,০০০/-

  চেয়ারম্যান, চাঁদপাশা ইউনিয়ন পরিষদ তাঁর  ইউনিয়নের ১% ভূমি  হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের নিমিত্তে অনুমোদনের জন্য নিম্নলিখিত প্রকল্প সভায় উপস্থাপন করেন।

১। কালিকাপুর গ্রামে মোকলেচুর রহমান-এর বাড়ীতে গভীর নলকূপ স্থাপন।

টাকা-৬০,০০০/-

 

২। কালিকাপুর গ্রামে জাকির পিতা কোববাত আলী খান-এর বাড়ীতে গভীর নলকূপ স্থাপন। টাকা-৬০,০০০/-

 পর্যায়ক্রমে উপজেলা পরিষদ ১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের

সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

 

 

 

 

 

 

        ঐ

 

 

 

 

 

 

 

 

         ঐ

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

  পর্যায়ক্রমে উপজেলা পরিষদ ১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের

সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

 

 

 

 

ইউনিয়ন পরিষদ ১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের

সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

 

  উপজেলা প্রকৌশলী, বাবুগঞ্জ

 

 

 

 

 

 

 

 

     ঐ

 

 

 

 

 

 

 

 

     ঐ

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

      ঐ

 

 

 

 

 

 

 

 

     ঐ

 

   

      কেদারপুর, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নবনির্বাচিত মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও মাননীয় এমপি মহোদয়কে আমতরিক শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানিয়ে  কেদারপুর ইউনিয়নের রাস্তাঘাট অনুন্নত যাতাযাতের ব্যবস্থা ভাল নেই। চিকিৎসার ক্ষেত্রেও তদ্রুপভাবে স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে উন্নত চিকিৎসার কোন ব্যবস্থা নেই। এছাড়া কতক অকেজো বিদ্যালয় ভবন আছে সে ভবনে ক্লাস করানো সম্ভব নয়। সব কিছু মিলে যাতে সু-চিকিৎসার ব্যবস্থা তথা অকেজো বিদ্যালয় সমূহনির্মানের ব্যবস্থা এবং যাতায়াত ব্যবস্থার জন্য রাস্তাঘাটের উন্নয়নের জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের  সু-দৃষ্টি কামনা করা হয়। এছাড়া কেদারপুর ইউনিয়নের অন্যান্য বিষয়ে মোটামুটি ভাল বলে তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করেন

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

      

     দেহেরগতি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নবনির্বাচিত মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও মাননীয় এমপি মহোদয়কে আমতরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জনাব রাশেদ খান মেনন এমপি বাংলাদেশে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন বিষয়ক মন্ত্রী নিযুক্ত করায় বাবুগঞ্জ উপজেলাবাসীর পক্ষ থেকে এ সভার মাধ্যমে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয় এবং একইসাথে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে সকলের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়। তিনি বলেন মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের সময়ে বাবুগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার রাস্তা ঘাট, স্কুল কলেজ মাদ্রাসা ও মসজিদের উন্নয়নমূলক  কাজ করে বাবুগঞ্জ উপজেলাকে মডেল উপজেলা হিসেবে সুসজ্জিত করে গড়ে তুলবেন সকলের পক্ষ থেকে দাবী এবং এ আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

 

 

 

 

   জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন তাঁর ইউনিয়নে রাজনৈতিক ঠেলাঠেলির কারণে কোন ধরনের কোন উন্নয়নমূলক কাজ হয়নি। তিনি আরো বলেন ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরে এডিপির খাতে যে বরাদ্দ পাওয়া গেছে তা খাতওয়ারী বিভাজন করে পরবর্তী সভায় উপস্থাপনের জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ করা হয়।

 

 

 

 

       চাঁদপাশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও মাননীয় এমপি মহোদয়ের আমতরিক শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানিয়ে  চাঁদপাশা ইউনিয়নের রাস্তাঘাট অনুন্নত যাতাযাতের ব্যবস্থা ভাল নেই। চিকিৎসার ক্ষেত্রেও তদ্রুপভাবে স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে উন্নত চিকিৎসার কোন ব্যবস্থা নেই। এছাড়া কতক অকেজো বিদ্যালয় ভবন আছে সে ভবনে ক্লাস করানো সম্ভব নয়। সব কিছু মিলে যাতে সু-চিকিৎসার ব্যবস্থা তথা অকেজো বিদ্যালয় সমূহনির্মানের ব্যবস্থা এবং যাতায়াত ব্যবস্থার জন্য রাস্তাঘাটের উন্নয়নের জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের  সুদৃষ্টি কামনা করা হয়। এছাড়া চাঁদপাশা ইউনিয়নের অন্যান্য বিষয়ে মোটামুটি ভাল বলে তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

 

 

 

   মাধবপাশা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন মাধবপাশা দুর্গাসাগরের উন্নয়ন তথা পর্যটন কেন্দ্র এবং দুর্গাসাগরের পাড়ে ১০ শয্যা বিশিষ্ট একটি হাসপাতাল রয়েছে। উক্ত হাসপাতালটি ৫০ শয্যায় উন্নীত করা এবং ভালমানের ডাক্তার দ্বারা সেবা পাওয়ার জন্য সার্বক্ষণিক ডাক্তার রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মাননীয় মন্ত্রী ও মাননীয় এমপি মহোদয়ের নিকট মাধবপাশা ইউনিয়নের জনগণের পক্ষ থেকে জোর দাবী জানান। তিনি আরো বলেন মাধবপাশার বাজারটি বেশ বড় হয়েছে। বাজারের বাইপাস সড়কটি বেশ বড় হয়েছে। বাজারে মাছ মাংশের দোকান রয়েছে। কিমতু মাছ মাংশ বাজারের  জমি নেই। বাজার উন্নয়ন ইউনিয়ন পরিষদের রাস্তাঘাট কালভার্ট ব্রীজ মেরামতের জন্য আর্থিক সহযোগিতার দাবী জানান। এছাড়া যদি সুযোগ হয় ভিজিডি ভিজিএফ এর কেরিং কষ্ট বাড়ানোর জন্য সংসদে উল্থপনের জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়।

 

 

 

   রহমতপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে স্বাগত ও ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন তাঁর ইউনিয়ন পরিষদ ভবনটি অনেক আগের জড়াজীর্ণ পুরাতন ভবন।  ভবনটিতে অফিস করা খুবই ঝুকীপূর্ণ। যে কোন মুহুর্তে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে  জানান। রহমতপুর পুরাতন ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের স্থলে একটি নতুন ইউনিয়ন পরিষদ ভবন করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে তিনি মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে বিশেষভাবে অনুরোধ করেন।

 

 

 

 

   উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সভায় বলেন উপজেলা পরিষদ সভায় জনাব রাশেদ খান মেনন এমপি বাংলাদেশে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন বিষয়ক মন্ত্রী নিযুক্ত করায় এবং নবনির্বাচিত মাননীয় এমপি মহোদয়ের উপস্থিতিতে সকলের পক্ষ থেকে  আমতরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন বাবুগঞ্জ ঐতিহ্যবাহী উপজেলা। কিন্তু এ উপজেলায় উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে অনেক পিছিয়ে আছে। বাবুগঞ্জ উপজেলায়  উন্নয়নমূলক কাজ যেমন রাস্তা ঘাট সংস্কার, পুল কাভার্ট নির্মাণ, স্কুল কলেজ মাদ্রাসা মসজিদ নির্মাণ/মেরামত, কৃষকদের জন্য খাল খনন ও কৃষি কাজের জন্য উন্নত কৃষি যন্ত্রপাতি সরবরাহ, নদীভাঙ্গন রোধের জন্য যে সমস্যা রয়েছে তা সুব্যবস্থাপনার মাধ্যমে সমাধানের জন্য বাবুগঞ্জবাসীর পক্ষ থেকে তিনি মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট জোড় দাবী ও সুপারিশ করেন।

 

 

 

 

  

   মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় জনাব রাশেদ খান মেনন এমপি ও মাননীয় সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট টিপু সুলতান-এর উপজেলা পরিষদ সভায় উপস্থিতির জন্য চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বাবুগঞ্জ লালগালিচা শুভেচ্ছো স্বাগতম ও আমতরিক অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন এ উপজেলার আপামর জনসাধারণের সকলের ভাগ্য খুলেছে যে, সনামধন্য বিখ্যাত ও প্রখ্যাত একজন মন্ত্রী পেয়ে। সাথে মাননীয় এমপি আছেন যাদের মাধ্যমে এলাকায় বেশী বেশী উন্নয়ন ঘটবে, উন্নয়নের কাজ হবে। বাবুগঞ্জবাসী সুফল ভোগ করবেন, ধন্য হবেন, ভাল থাকবেন। এ আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি বাবুগঞ্জ উপজেলাবাসীর পক্ষ থেকে বাবুগঞ্জের সার্বিক উন্নয়নের জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট নিম্নলিখিত দাবীগুলি তুলে ধরেন-

১। উপজেলা কমপ্লেক্স-এর প্রাচীর নির্মাণ।

২। অডিটরিয়াম নির্মান/সংস্কার।

৩। ডাকবাংলো নির্মাণ।

৪। উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার নির্মাণ।

৫। কমপ্লেক্স-এর অভ্যামত্মরীন রাসত্মা সংস্কার।

৬। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বাংলো নির্মাণ।

৭। রহমতপুর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র নির্মাণ/সংস্কার।

৮। কোর্টবিল্ডিং সংস্কার/মেরামত।

৯। রহমতপুর ইউনিয়ন পরিষদ ভবন উর্ধ্বমুখী নির্মাণের প্রস্তাব অনুমোদন ও

     বাস্তবায়ন।

১০। দোয়ারিকা ব্রিজ-এর নদীশাসন।

১১। উপজেলা পরিষদ মসজিদ মেরামত/সংস্কার।

১২। বিআরডিবি ভবন সম্প্রসারণ।

১৩। অফিসার্স ক্লাব ভবন ও লাইব্রেরী নির্মাণ।

১৪। উপজেলা পরিষদ পুকুরের চতুর্দিকে Walkway সহ ২টি ঘাটলা নির্মাণ।

 

১৫। বিমান বন্দর উন্নয়ন।

১৬। বাবুগঞ্জে পর্যটন মেটেল নির্মাণ।

১৭। বাবুগঞ্জ বাজারের উত্তরে খেয়া/লঞ্চ ঘাট/মীরগঞ্জঘাটের উন্নয়ন।

১৮। বাবুগঞ্জ বাজারে রাসত্মা ও ড্রেন নির্মাণ।

১৯। উপজেলা স্টেডিয়াম উন্নয়ন ,উঁচুকরা/বিভাগীয় স্টেডিয়াম বাবুগঞ্জে নির্মাণ।

২০। বাবুগঞ্জ থানায় নতুন গাড়ী সরবরাহ।

২১। বাবুগঞ্জ হতে বাহেরচর হাসপাতালে যেতে নদীতে ব্রিজ নির্মাণ।

২২। খাবার পানির জন্য উপজেলায় ১০০০টি গভীর নলকহপ স্থাপনের প্রকল্প গ্রহণ।

২৩। Civil Aviation স্কুল প্রতিষ্ঠা।

২৪। মিরগঞ্জ ঘাট থেকে দোয়ারিকা ব্রিজ পর্যমত্ম নদী শাসন (ফরিদগঞ্জ মাদ্রাসা, আবুলকালাম ডিগ্রি কলেজ, চরসাধুকাঠী মাদ্রাসা, সৈয়দ মোষারফ-রাশিদা একাডেমী, বিমানবন্দর পর্যমত)।

২৫। মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিসৌধ নির্মাণ ইত্যাদি।

 

    উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জনাব মোঃ বাকাহীদ হোসেন, বাবুগঞ্জ, বরিশাল উল্লিখিত বিষয়ের কার্যক্রম বাস্তবায়নের নিমিত্তে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও মাননীয় এমপির নিকট জোর সুপারিশসহ বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়।

 

   মাননীয় সংসদ সদস্য এ্যডভোকেট টিপু সুলতান সভায় বলেন নির্বাচনের পর এই প্রথম আনুষ্ঠানিকতা হয়েছে। মন্ত্রী মহোদয়কে এই  প্রথমেই পেয়েছি। এজন্য সকলকে ধন্যবাদ জানানো হলো। তিনি বলেন দেহেরগতি মাত্র ০৩টি রাসত্মা আছে। রাস্তঘাট নেই। হাসপাতালে এম্বুলেন্স নেই। একই জায়গায় বার বার প্রকল্প এসেছে তা কাম্য নয়। সমন্বয় হীনভাবে কাজ করা হলে ভোগামিত হবে। সমন্বয় থাকা অত্যমত জরুরী। যে সকল দায়িত্ব দিয়েছেন তা রক্ষা করার চেষ্টা করা হবে। চেষ্টা করা হবে দাবী দাওয়া বাস্তবায়নের এই বলে তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

 

    মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়  সকলকে শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন সকল উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে তাঁর সহযোগিতা থাকবে। এ অঞ্চলের উন্নয়নের ক্ষেত্রে অগ্রগন্য ভূমিকা থাকবে। স্থানীয় সরকার ব্যবস্থাটি খুব গুরুত্বপূর্ন। বাস্তবয়নে এগুতে উপজেলা পরিষদগুলো কার্যকর ভূমিকা রাখবে।ক্ষমতায়ন আয় বৃদ্ধি নিজস্ব গতিতে করতে হবে। পারস্পারিক সম্পর্ক রাখতে হবে। নয়ত সঠিকভাবে পরিষদ চলবে না। সম্পর্ক এবং পরিকল্পিতভাবে সুসম একটি প্রক্রিয়া উন্নয়নের প্রক্রিয়ার সাথে যুক্ত থাকবেন বলে তিনি আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি বলেন এলাকায় ইতোমধ্যে নিম্নলিখিত কার্যক্রম সম্পন্ন/প্রক্রিয়াধীন আছে।

১। হাসপাতালে ১০.০০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে।

২। ১১ টি ভবন করা হয়েছে।

৩। ৭২ টি মসজিদ করা হয়েছে।

৪। ১০ কোটি টাকার রাসত্মা কালভার্ট করা হয়েছে।

৫। নদী ভাঙ্গন রোধের জন্য ৩.০০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে।

   তিনি বাবুগঞ্জের সংসদ সদস্যকে সকল কর্মকান্ডে সহযোগিতা করার জন্য বলেন। তিনি আরো বলেন আগামী ১ মাসের মধ্যে ডাকবাংলোর ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পর্যটনের ব্যাপারে ইতোমধ্যে ব্যপক আলোচনা হয়েছে। বিমান বন্দর বৃদ্ধি করা হবে। মূল রাস্তার ব্যাপারে তিনি বলেন মূলাদির অংশের টেন্ডার হয়েছে। বাবুগঞ্জের রাস্তাও টেন্ডারের জন্য প্রক্রিয়াধীন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

     চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ বলেন দক্ষিণ অঞ্চলের কৃতি সমতান তথা বার বার এমপি নির্বাচিত হওয়া বাবুগঞ্জের সমতান  বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী জনাব রাশেদ খান মেনন এমপি বাবুগঞ্জের কর্ণধার হিসেবে মাধবপাশা দুর্গাসাগর দিঘীকে পর্যটন হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন ও পর্যটনের উন্নয়নমূলক কার্যক্রম শুরু করার জন্য ৬.০০ কোটি টাকার বরাদ্দ করেছেন। তিনি বলেন মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও সংসদ সদস্য মহোদয় এ্যাডভোকেট টিপু সুলতান-এর উপজেলা পরিষদ সভায় আসার জন্য বড় কৃতজ্ঞ ও গর্বিত। তিনি বাবুগঞ্জের পক্ষ থেকে তাঁদেরকে আমতরিকভাবে শুভেচ্ছা  ও অভিনন্দন জ্ঞাপন করেন। বাবুগঞ্জের উন্নয়নের জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও মাননীয় সংসদ সদস্যের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়সহ সকলের সুস্বাস্থ্য কামনায় তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

 

 

 

 

           পরিশেষে আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার কার্যক্রম সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়

                                                                                                                      

 

 

     

                      ( সুলতান আহমেদ খান )

                                                                                                         উপজেলা চেয়ারম্যান

                                                                                                                  ও

                                                                                                               সভাপতি

                                                                                                       উপজেলা পরিষদ কমিটি

                                                                                                           বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

 

 

স্মারক নং- উনিঅকা/বাবু/ ২০১৪-              /১(৩৫)                                                 তারিখ - ২৫/০১/২০১৪ খ্রিঃ।

 

১। মাননীয় সংসদ সদস্য - ১২১, বরিশাল - ০৩ ।

২। সচিব,স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্থানীয় সরকার, পল্লী ও সমবায় মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

৩। কমিশনার, বরিশাল বিভাগ, বরিশাল  ।

৪। জেলা প্রশাসক, বরিশাল।

৫। চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

৬। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

৭। উপজেলা .................................................অফিসার, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

৮। চেয়ারম্যান ............................................ইউপি, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

৯। জনাব..................................................বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

       

                      (মোঃ বাকাহীদ হোসেন)

                         উপজেলা নির্বাহী অফিসার                                                                                           

                             বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

 

 


 

                             বাবুগঞ্জ উপজেলার  জানুয়ারি ২০১৪-এর উপজেলা পরিষদ সভার কার্যবিবরণী-

                                            

 

সভাপতি   ঃ  জনাব সুলতান আহমেদ খান

                চেয়ারম্যান

                উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

 

সভার স্থান ঃ  উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষ, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

তারিখ      ঃ ২৫/০১/২০১৪ খ্রিঃ ;  সময়ঃ ১১.৩০ মিঃ।

 

                          (সভায় উপস্থিত/অনুপস্থিত সদস্যগণের নামের তালিকা পরিশিষ্ট ‘ক’-তে দেখানো হলো।) 

       

             

       উপজেলা পরিষদ সভায় উপস্থিত মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় জনাব রাশেদ খান মেনন ও মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব টিপু সুলতান খানসহ সকলকে স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয় এবং সভার সভাপতি  উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জনাব সুলতান আহমেদ খান সভা পরিচালনার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অনুরোধ করেন। অতঃপর বিগত সভার কার্যবিবরণী সভায় পাঠ করে শুনান হয় এবং সর্বসম্মতিক্রমে দৃঢ়ীকরণ করা হয়। অতঃপর উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন বিভাগের কার্যক্রম আলোচনাক্রমে সিদ্ধান্ত  গৃহীত হয়।

  বিভাগ

                                  আলোচনা

     সিদ্ধান্ত                     

 বাস্তবায়ন

প্রকৌশলী

বিভাগ

       উপজেলা প্রকৌশলী সভায় বলেন চলতি অর্থ বছরে এডিপির ১ম ও ২য় কিস্তির ২টি  বরাদ্দ এসেছে। ৩য় কিস্তির বরাদ্দ পাওয়া যায়নি। তবে খুব শীঘ্রই পাওয়া যাবে মর্মে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি আরো বলেন বর্ষা মৌসুমের পূর্বেই এডিপি প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন করার লক্ষ্যে জরুরীভাবে ০৩টি কিস্তির বরাদ্দের অর্থ ধরে প্রকল্প গ্রহণপূর্বক তালিকা অনুমোদন ও বাস্তবায়নের নিমিত্তে সভায় উপস্থাপন করার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানদেরকে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়।

 

      এডিপির বরাদ্দ সম্পর্কে আলোচনাকালে  ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানগণ  বলেন (ডিসেম্বর ২০১৩ মাসের সভার) কার্যবিবরণীতে এডিপির অর্থে বাস্তবায়নের জন্য যে সকল প্রকল্প উঠানো হয়েছে সে সম্পর্কে তাঁরা অবহিত নহেন। তাই এবিষয়ে মাননীয়  এমপি মহোদয়ের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধামত নেয়ার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানগণ একমত পোষন করেন।

 

      তিনি বলেন কেদারপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের নিকট ৮/২/২০১৪ খ্রিঃ তারিখে একখানা আবেদন করেন। আবেদনে কেদারপুর এলাকায় উপজেলা ১%ভূমি রাজস্ব খাতের অর্থায়নে ১৫(খ)১৩-১৪ নং গ্রুপের কাজের নাম পূর্বভূতেরদিয়া সাইফুর রহমান মাস্টারের বাড়ীর উত্তর পার্শ্বে বক্র্ কালভার্ট নির্মাণের জন্য প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। ইতোমধ্যে উক্ত স্থানে একটি কালভার্ট নির্মাণ হওয়ায় উক্ত স্থানের পরিবর্তে পূ্র্বভূতেরদিয়া সাইফুর রহমান (সাইদুর) মাস্টারের বাড়ীর দক্ষিণ পার্শ্বে ঘেরের উপর বক্স্র কালভার্টটি নির্মাণের প্রস্তাব রাখেন।

 

 

 

 

 

 

 

উত্তেলিত প্রকল্প নিয়ে    মাননীয় এমপি মহোদয়ের নেতৃত্বে আলোচনার মাধ্যমে  সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

 

 

উক্ত প্রস্তাব সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

উপজেলা প্রকৌশলী

বাবুগঞ্জ

 

ম্বাস্থ্য বিভাগ

    উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা মোঃ ফকরুল আলম, সভায় বলেন  মার্তৃত্ব মৃত্যু হার আগের চেয়ে অনেক কমেছে। মানুষের গড় আয়ু ৪৫ বছর থেকে ৬৯.৫ বছরে উন্নীত হয়েছে। তিনি আরো বলেন দেহেরগতি (সাব সেন্টার) স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এর জমি জেলা পরিষদ লীজ দিয়েছে। যার জন্য জমি কমে একেবারে ছোট হয়ে গেছে।তিনি জানানবাহেরচর হাসপাতালে মোট ০৯জন ডাক্তারের পদ রয়েছে। এর মধ্যে কর্তব্যরত ০৬ জন ডাক্তার আছেন । ০৩টি পদ শূন্য রয়েছে।

    চেয়ারম্যান, ৩নং দেহেরগতি ইউপি সভায় বলেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তাকে নিয়ে বর্তমানে মোট ০৬জন তাঁরা ডেপুটেশনে থাকেন। ডাক্তার মূলত আসেন না, থাকেন না। মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় জনাব রাশেদ খান মেনন-এর বাড়ীর দরজায় বাহেরচর হাসপাতালটি তাই সার্বক্ষণিক ডাক্তার রাখার জন্য তিনি মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট অনুরোধ জানান।

 উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা বলেন রোগীদের জন্য ওয়াসরুম ভাল নেই, পাম্প ভেযে্গ গেছে। এক্সে মেশিন অকেজো। টেকনোলজি নেই। রক্ত পরীক্ষা করার টেকনোলজি নেই। এম্বুলেন্স ১টি আছে। তেমন ভাল নেই।সার্বক্ষণিক ডাক্তার রাখা সহ এক্সে মেশিন, টেকনোলজি ও রক্ত পরীক্ষা করার টেকনোলজি পদায়ন এবং ভালমানের ১টি এম্বুলেন্স সরবরাহের জন্য অনুরোধ করা হয়।

এব্যাপারে মেইন্টেন্সে প্রকৌশলীকে অবহিত করার  সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

প্রানিসম্পদ বিভাগ

    সভায় উপজেলা প্রানিসম্পদ কর্মকর্তা বলেন এ বিভাগের কার্যক্রম  সুষ্ঠুভাবে চলছে। তিনি জানান গবাদি প্রাণির কৃত্রিম প্রজননের সংখ্যা ২০২ টি। টিকা দেয়া হয়েছে ১১২টি গবাদি প্রাণিকে এবং টীকা দেয়া হয়েছে ৪৩টি হাঁস ও ১০০টি মুরগীকে।

 বিভাগীয় কার্যক্রমে আরো তৎপর হওয়ার জন্য পরামর্শ দেয়া হলো

প্রানিসম্পদ কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

 

উপজেলা কৃষি বিভাগ

   উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সভায় বলেন কৃষিবান্দব সুসমভাবে সার বৃদ্ধি পেয়েছে।  ৭২% কৃষকরা এখন দেড় হাজার মেঃ টন টিএসপি, পটাশ সার ব্যবহার করছে।  সারের দাম কমের ফলে সুসম সার ব্যবহার করা গেছে। ফলে আমনের ফলন ভাল  বাবুগঞ্জে এবছর ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। এছাড়া রবি শস্যের সার্বিক ফলনও ভাল হয়েছে। অনেক পাকা ড্রেনের মাধ্যমে সেচনালা করা হলে বোরোচাষের জন্য আরো এলাকা বাড়ানো সম্ভব হবে। আগের সেই খালগুলি ভরাট হয়ে গেছে। উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাল খনন প্রকল্পের মাধ্যমে যে খালগুলো খনন করাচ্ছেন তা যথেষ্ট নয়। আরো খাল খনন করা হলে আরো অনেক সফলতা অর্জন করা সম্ভব হবে মর্মে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি আরো বলেন পরিবেশ-এর ভারসাম্য রক্ষার জন্য নিম ব্যবহারের জন্য চাষীদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

 এব্যাপারে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের হস্তক্ষেপ এবং সহযোগিতা কামনা করা হয়।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

মৎস্য বিভাগ

   উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সভায় বলেন  তাঁর বিভাগের কার্যক্রম যথাযথভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই।

    ----

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

সমাজসেবা বিভাগ

   উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা বলেন তাঁর বিভাগের কাজকর্ম সুষ্ঠুভাবে চলছে। বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধীভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, বয়স্কভাতাসহ অন্যান্য ভাতার বাড়তি ভাতা প্রদানের তালিকা দাখিলের জন্য ইউপি চেয়ারম্যানদেরকে অনুরোধ করা হয়। সকল প্রকার ভাতাদি গ্রহণের ক্ষেত্রে  গ্রহীতাদের সুবিধার্থে নিজ নিজ ইউনিয়নে অথবা পার্শ্ববর্তী ইউনিয়নের ব্যাংক থেকে প্রদানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দেহেরগতি, কেদারপুর ও মাধবপাশা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানগণ সভায় প্রস্তাব রাখা হয়।

এছাড়াও দলিত সম্প্রদায়দের জন্য নতুনভাবে ভাতা প্রদান করা হবে। এব্যাপারে কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য কার্যক্রম  যথাযথভাবে চলছে।

সকল প্রকার  ভাতা গ্রহীতাদের সুবিধার্থে নিজ নিজ এলাকার ব্যাংক সমূহথেকে ভাতাদি প্রদানের ব্যবস্থা সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

শিক্ষা বিভাগ

 

   উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সভায় বলেন তাঁর কার্যালয়ের কাজকর্ম  যথাযথভাবে চলছে। এছাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। বিদ্যালয়ে রীতিমত ক্লাস শুরু হয়েছে। বর্তমানে বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শেষ হয়েছে। উপজেলা পর্যায়ের ক্রীড়া অনুষ্ঠান চলমান।

       ----

উপজেলা শিক্ষা

কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগ

     উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সভায় বলেন তাঁর কার্যালয়ের কাজকর্ম স্বাভাবিকভাবে চলছে। বিদ্যালয়ে রীতিমত ক্লাস শুরু হয়েছে। বর্তমানে বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা চলছে।

       ----

উপজেলা মাধ্যমিকশিক্ষা কর্মকর্তা বাবুগঞ্জ

সমবায় বিভাগ

   উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা বলেন তাঁর কার্যালয়ের কাজকর্ম  স্বাভাবিকগতিতে চলছে। চাঁদপাশা ইউনিয়নে দুগ্ধ সমবায় সমিতি গঠনের কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে। কেদারপুর,দেহেরগতি ও আগরপুর ইউনিয়নে গাভী পালন বেশী গওয়ায় ঐ সকল ইউনিয়নে পর্যায়ক্রমে এ প্রকল্প বিস্তৃত করা হবে মর্মে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যন সভায় বলেন।

       ----

 

উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

পরিসংখ্যান

বিভাগ

  উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা সভায় বলেন তাঁর বিভাগের কার্যক্রম ভালভাবে চলছে।

       ----

উপজেলা পরিসং কর্মকর্তা

পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ

 

 উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সভায় জানান যে এ উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রম সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে। তবে মাঠপর্যায়ে মাঠকর্মীদের মধ্যে অবসরে ০৮জন অছেন এদের ছাড়াই কার্যক্রম ভাল হয়েছে। ০৪ জন পাওয়া গেছে। এখন আরো ভাল হবে মর্মে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। জানুয়ারী মাসের আশ্রয়ন প্রকল্পের পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচির মাসিক প্রতিবেদন নিম্নরূপ-

ব্যারাক সংখ্যা

হাউজের সংখ্যা

জন

সংখ্যা

দম্পতি

সংখ্যা

স্থায়ী পদ্ধতি

অস্থায়ী পদ্ধতি

ইমপ্লান্ট

কনডম

সুখী

মোট

পুরুষ

মহিলা

মোট

ইনজেকশন

কপারটি

০৮

৮০

১১৭

২০

০১

-

০১

০৯

-

০৬

১৮

 

        ---

 

 

 

 

 

 

  

 

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

পল্লীউন্নয়ন বিভাগ

  উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা বলেন বি আর ডিবির কার্যক্রম ও একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্পের কার্যক্রম সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে চলছে। বিতরণকৃত ঋণের অর্থ সমেতাষজনকভাবে আদায় হচ্ছে।

 

       ---

উপজেলা পল্লীউন্নয়ন কর্মকর্তা, বাবুগঞ্জ

যুব উন্নয়ন বিভাগ

 

  উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সভায় বলেন তাঁর বিভাগীয় কার্যক্রম ভালভাবে হচ্ছে। বিতরণকৃত ঋণের আদায়ের পরিমান সমেতাষজনক।

       ---

উপজেলা  যুব উন্নয়নকর্মকর্তা,

বাবুগঞ্জ

ত্রাণ বিভাগ

 

 মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় জনাব রাশেদ খান মেনন বাবুগঞ্জ উপজেলার টি আর, কাবিখা, কাবিটা ও ব্রীজ কালভার্টের অবস্থা সম্পর্কে জানতে চান। সে আলোকে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা  বলেন টি আর ১ম ও ২য় পর্যায় (বিশেষ)-এর ডিও ছাড় করা হয়েছে। ব্রীজ কালভার্টের টেন্ডার হয়েছে। ব্রীজ কালভার্টের  টেন্ডার হয়েছে। কাবিকা বিশেষ ১ম পর্যায়ের ডিও ছাড় করার প্রক্রিয়া চলছে। কিন্তু ২য় পর্যায়ের বরাদ্দ পাওয়া যায়নি। পাওয়া সাপেক্ষে বর্তমান পরিস্থিতির উপর বিবেচনা করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এছাড়া সাধারণ কাবিখা বরাদ্দ ইউনিয়ন অনুসারে বিভাজন করে পত্র দেয়া হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তালিকা পাওয়া মাত্র দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে মর্মে তিনি বলেন।

    ইউনিয়ন পরিষদ থেকে দ্রুত তালিকা  প্রদানের  জন্য চেয়ারম্যানদেরকে অনুরোধ করেন।

উপজেলা প্রকল্প

বাস্তবায়ন, কর্মকর্তা

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর

  উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বলেন  ভিজিডি বরাদ্দ পাওয়া গেছে। আগামী মাস থেকে বিতরণ কার্যক্রম শুরু হবে। এছাড়া এ উপজেলা মোট ৩৩টি মহিলা সমিতি রয়েছে। অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে।

        ---

উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর

   উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য) প্রকৌশলী সভায় বলেন তাঁর বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে। গত অর্থ বছরের বরাদ্দকৃত নলকূপ  ৩০ জুন ২০১৩ এর পূর্বেই সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে ২০টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গভীরনলকূপ স্থাপনের কাজ চলছে।

        ---

উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য)

বাবুগঞ্জ।

বন বিভাগ

 

  ফরেষ্টার, বনবিভাগ সভায় বলেন  তাঁর দপ্তরের কাজকর্ম ভালভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই।

       ---

ফরেষ্টার বনবিভাগ বাবুগঞ্জ

বিবিধ

    চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ ১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের নিমিত্তে অনুমোদনের জন্য নিম্নলিখিত প্রকল্পসমূহ সভায় উপস্থাপন করেন।

 

১। চাঁদপাশা মোঃ হানিফ মৃধা পিতা- আঃ কাদের মৃধা সাং- বকশিরচর-এর বাড়ীতে

     গভীর নলকহপ স্থাপন। 

 

২। উত্তর রহমতপুর  মোঃ ইউনুচ (অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ) পিতা-আঃ জববার হাওলাদার-

     এর বাড়ীতে গভীর নলকহপ স্থাপন। 

 

৩। রাকুদিয়া কবির হাওলাদার- এর বাড়ীর সামনে কালভার্ট নির্মাণ।

     টাকা- ৫০,০০০/-

 

   উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ ১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের নিমিত্তে অনুমোদনের জন্য নিম্নলিখিত প্রকল্পসমূহ সভায় উপস্থাপন করেন।

 

১। মোঃ ফরিদউদ্দিন মাস্টারের বাড়ীতে গভীর নলকহপ স্থাপন। টাকা-৬০,০০০/-

 

২। চাঁদপাশা ডিক্রিরচর নাদের আলী বাড়ীর সামনে খালের উপর ব্রিজ নির্মাণ।

     টাকা-৮০,০০০/-

 

৩। খানপুরা মোঃ আলাউদ্দিন পিতা- আঃ খালেক আকন-এর নতুন বাড়ীতে গভীর   

     নলকহপ স্থাপন। টাকা-৬০,০০০/-

 

৪। দক্ষিণ ভূতেরদিয়া লতিফ হাওলাদার বাড়ীর ঈদগা মাঠ সংস্কার-৩০,০০০/-

 

৫। মাধবপাশা ইউনিয়নের পশ্চিম লাফাদি গ্রামের আবদুল কাদের সিকদার বাড়ীর

     সামনের রাসত্মায় ইটের সলিং করন।

 

     উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ

১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের নিমিত্তে অনুমোদনের জন্য নিম্নলিখিত প্রকল্প সভায় উপস্থাপন করেন।

 

১। অর্জুনমাঝি সহিদুল ইসলামের বাড়ীর সামনে খালের উপর ব্রীজ নির্মাণ।

     টাকা ১,০০,০০০/-

 

সংশোধনী-

১। চাঁদপাশা ইউনিয়নে ডিক্রিরচর দেলোয়ার হোসেন (জেলা প্রশাসক, মেহেরপুর)-এর বাড়ীর কাছে জোড়াবাড়ী খালের উপর ইউনিয়ন পরিষদের ব্রীজটি বিএডিসি কর্তৃক করা হবে বিধায় ব্রীজটি অপসারনের জন্য অনুরোধ করা হলো।

 

২। পূর্ববর্তী কার্যবিবরণীর সংশোধনী পূর্বক চাঁদপাশা শাসছুল হক পিতা-আইনউদ্দিন হাওলাদার-এর বাড়ীতে গভীর নলকূপ স্থাপন- টাকা- ৬০,০০০/-

 

৩। উত্তর রহমতপুর  মোঃ সোহেল পিতা- মোঃ আলী হোসেন-এর বাড়ীতে গভীর

 নলকূপ স্থাপন। টাকা-৬০,০০০/-

 

৪। মাধবপাশা ইউনিয়নে গজালিয়া আঃ ছোবাহান হাওলাদারের বাড়ীর উত্তর পার্শ্বে

বক্সকালভার্ট নির্মাণ। টাকা ৪০,০০০/- টাকার স্থলে সংশোধন পূর্বক ৫০,০০০/-   
প্রদান।

 

৫। বুলু হাওলাদার পিতা-আদম আলী হাওলাদার পশ্চিম রাজগুরু এর বাড়ীতে গভীর নলকূপ স্থাপন। টাকা-৬০,০০০/-

 

৬। লোহালিয়া গ্রামের মৌরসীয়া পারভীন-এর বাড়ীতে গভীর নলকূপ স্থাপন।

টাকা-৬০,০০০/-

  চেয়ারম্যান, চাঁদপাশা ইউনিয়ন পরিষদ তাঁর  ইউনিয়নের ১% ভূমি  হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের নিমিত্তে অনুমোদনের জন্য নিম্নলিখিত প্রকল্প সভায় উপস্থাপন করেন।

১। কালিকাপুর গ্রামে মোকলেচুর রহমান-এর বাড়ীতে গভীর নলকূপ স্থাপন।

টাকা-৬০,০০০/-

 

২। কালিকাপুর গ্রামে জাকির পিতা কোববাত আলী খান-এর বাড়ীতে গভীর নলকূপ স্থাপন। টাকা-৬০,০০০/-

 পর্যায়ক্রমে উপজেলা পরিষদ ১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের

সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

 

 

 

 

 

 

        ঐ

 

 

 

 

 

 

 

 

         ঐ

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

  পর্যায়ক্রমে উপজেলা পরিষদ ১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের

সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

 

 

 

 

ইউনিয়ন পরিষদ ১% ভূমি হস্তামতরীত করের অর্থ দ্বারা বাস্তবায়নের

সিদ্ধামত গৃহীত হয়।

 

  উপজেলা প্রকৌশলী, বাবুগঞ্জ

 

 

 

 

 

 

 

 

     ঐ

 

 

 

 

 

 

 

 

     ঐ

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

      ঐ

 

 

 

 

 

 

 

 

     ঐ

 

   

      কেদারপুর, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নবনির্বাচিত মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও মাননীয় এমপি মহোদয়কে আমতরিক শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানিয়ে  কেদারপুর ইউনিয়নের রাস্তাঘাট অনুন্নত যাতাযাতের ব্যবস্থা ভাল নেই। চিকিৎসার ক্ষেত্রেও তদ্রুপভাবে স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে উন্নত চিকিৎসার কোন ব্যবস্থা নেই। এছাড়া কতক অকেজো বিদ্যালয় ভবন আছে সে ভবনে ক্লাস করানো সম্ভব নয়। সব কিছু মিলে যাতে সু-চিকিৎসার ব্যবস্থা তথা অকেজো বিদ্যালয় সমূহনির্মানের ব্যবস্থা এবং যাতায়াত ব্যবস্থার জন্য রাস্তাঘাটের উন্নয়নের জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের  সু-দৃষ্টি কামনা করা হয়। এছাড়া কেদারপুর ইউনিয়নের অন্যান্য বিষয়ে মোটামুটি ভাল বলে তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করেন

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

      

     দেহেরগতি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নবনির্বাচিত মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও মাননীয় এমপি মহোদয়কে আমতরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জনাব রাশেদ খান মেনন এমপি বাংলাদেশে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন বিষয়ক মন্ত্রী নিযুক্ত করায় বাবুগঞ্জ উপজেলাবাসীর পক্ষ থেকে এ সভার মাধ্যমে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয় এবং একইসাথে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে সকলের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়। তিনি বলেন মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের সময়ে বাবুগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার রাস্তা ঘাট, স্কুল কলেজ মাদ্রাসা ও মসজিদের উন্নয়নমূলক  কাজ করে বাবুগঞ্জ উপজেলাকে মডেল উপজেলা হিসেবে সুসজ্জিত করে গড়ে তুলবেন সকলের পক্ষ থেকে দাবী এবং এ আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

 

 

 

 

   জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন তাঁর ইউনিয়নে রাজনৈতিক ঠেলাঠেলির কারণে কোন ধরনের কোন উন্নয়নমূলক কাজ হয়নি। তিনি আরো বলেন ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরে এডিপির খাতে যে বরাদ্দ পাওয়া গেছে তা খাতওয়ারী বিভাজন করে পরবর্তী সভায় উপস্থাপনের জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ করা হয়।

 

 

 

 

       চাঁদপাশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও মাননীয় এমপি মহোদয়ের আমতরিক শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানিয়ে  চাঁদপাশা ইউনিয়নের রাস্তাঘাট অনুন্নত যাতাযাতের ব্যবস্থা ভাল নেই। চিকিৎসার ক্ষেত্রেও তদ্রুপভাবে স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে উন্নত চিকিৎসার কোন ব্যবস্থা নেই। এছাড়া কতক অকেজো বিদ্যালয় ভবন আছে সে ভবনে ক্লাস করানো সম্ভব নয়। সব কিছু মিলে যাতে সু-চিকিৎসার ব্যবস্থা তথা অকেজো বিদ্যালয় সমূহনির্মানের ব্যবস্থা এবং যাতায়াত ব্যবস্থার জন্য রাস্তাঘাটের উন্নয়নের জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের  সুদৃষ্টি কামনা করা হয়। এছাড়া চাঁদপাশা ইউনিয়নের অন্যান্য বিষয়ে মোটামুটি ভাল বলে তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

 

 

 

   মাধবপাশা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন মাধবপাশা দুর্গাসাগরের উন্নয়ন তথা পর্যটন কেন্দ্র এবং দুর্গাসাগরের পাড়ে ১০ শয্যা বিশিষ্ট একটি হাসপাতাল রয়েছে। উক্ত হাসপাতালটি ৫০ শয্যায় উন্নীত করা এবং ভালমানের ডাক্তার দ্বারা সেবা পাওয়ার জন্য সার্বক্ষণিক ডাক্তার রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মাননীয় মন্ত্রী ও মাননীয় এমপি মহোদয়ের নিকট মাধবপাশা ইউনিয়নের জনগণের পক্ষ থেকে জোর দাবী জানান। তিনি আরো বলেন মাধবপাশার বাজারটি বেশ বড় হয়েছে। বাজারের বাইপাস সড়কটি বেশ বড় হয়েছে। বাজারে মাছ মাংশের দোকান রয়েছে। কিমতু মাছ মাংশ বাজারের  জমি নেই। বাজার উন্নয়ন ইউনিয়ন পরিষদের রাস্তাঘাট কালভার্ট ব্রীজ মেরামতের জন্য আর্থিক সহযোগিতার দাবী জানান। এছাড়া যদি সুযোগ হয় ভিজিডি ভিজিএফ এর কেরিং কষ্ট বাড়ানোর জন্য সংসদে উল্থপনের জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়।

 

 

 

   রহমতপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে স্বাগত ও ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন তাঁর ইউনিয়ন পরিষদ ভবনটি অনেক আগের জড়াজীর্ণ পুরাতন ভবন।  ভবনটিতে অফিস করা খুবই ঝুকীপূর্ণ। যে কোন মুহুর্তে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে  জানান। রহমতপুর পুরাতন ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের স্থলে একটি নতুন ইউনিয়ন পরিষদ ভবন করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে তিনি মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে বিশেষভাবে অনুরোধ করেন।

 

 

 

 

   উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সভায় বলেন উপজেলা পরিষদ সভায় জনাব রাশেদ খান মেনন এমপি বাংলাদেশে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন বিষয়ক মন্ত্রী নিযুক্ত করায় এবং নবনির্বাচিত মাননীয় এমপি মহোদয়ের উপস্থিতিতে সকলের পক্ষ থেকে  আমতরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন বাবুগঞ্জ ঐতিহ্যবাহী উপজেলা। কিন্তু এ উপজেলায় উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে অনেক পিছিয়ে আছে। বাবুগঞ্জ উপজেলায়  উন্নয়নমূলক কাজ যেমন রাস্তা ঘাট সংস্কার, পুল কাভার্ট নির্মাণ, স্কুল কলেজ মাদ্রাসা মসজিদ নির্মাণ/মেরামত, কৃষকদের জন্য খাল খনন ও কৃষি কাজের জন্য উন্নত কৃষি যন্ত্রপাতি সরবরাহ, নদীভাঙ্গন রোধের জন্য যে সমস্যা রয়েছে তা সুব্যবস্থাপনার মাধ্যমে সমাধানের জন্য বাবুগঞ্জবাসীর পক্ষ থেকে তিনি মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট জোড় দাবী ও সুপারিশ করেন।

 

 

 

 

  

   মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় জনাব রাশেদ খান মেনন এমপি ও মাননীয় সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট টিপু সুলতান-এর উপজেলা পরিষদ সভায় উপস্থিতির জন্য চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বাবুগঞ্জ লালগালিচা শুভেচ্ছো স্বাগতম ও আমতরিক অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন এ উপজেলার আপামর জনসাধারণের সকলের ভাগ্য খুলেছে যে, সনামধন্য বিখ্যাত ও প্রখ্যাত একজন মন্ত্রী পেয়ে। সাথে মাননীয় এমপি আছেন যাদের মাধ্যমে এলাকায় বেশী বেশী উন্নয়ন ঘটবে, উন্নয়নের কাজ হবে। বাবুগঞ্জবাসী সুফল ভোগ করবেন, ধন্য হবেন, ভাল থাকবেন। এ আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি বাবুগঞ্জ উপজেলাবাসীর পক্ষ থেকে বাবুগঞ্জের সার্বিক উন্নয়নের জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট নিম্নলিখিত দাবীগুলি তুলে ধরেন-

১। উপজেলা কমপ্লেক্স-এর প্রাচীর নির্মাণ।

২। অডিটরিয়াম নির্মান/সংস্কার।

৩। ডাকবাংলো নির্মাণ।

৪। উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার নির্মাণ।

৫। কমপ্লেক্স-এর অভ্যামত্মরীন রাসত্মা সংস্কার।

৬। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বাংলো নির্মাণ।

৭। রহমতপুর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র নির্মাণ/সংস্কার।

৮। কোর্টবিল্ডিং সংস্কার/মেরামত।

৯। রহমতপুর ইউনিয়ন পরিষদ ভবন উর্ধ্বমুখী নির্মাণের প্রস্তাব অনুমোদন ও

     বাস্তবায়ন।

১০। দোয়ারিকা ব্রিজ-এর নদীশাসন।

১১। উপজেলা পরিষদ মসজিদ মেরামত/সংস্কার।

১২। বিআরডিবি ভবন সম্প্রসারণ।

১৩। অফিসার্স ক্লাব ভবন ও লাইব্রেরী নির্মাণ।

১৪। উপজেলা পরিষদ পুকুরের চতুর্দিকে Walkway সহ ২টি ঘাটলা নির্মাণ।

 

১৫। বিমান বন্দর উন্নয়ন।

১৬। বাবুগঞ্জে পর্যটন মেটেল নির্মাণ।

১৭। বাবুগঞ্জ বাজারের উত্তরে খেয়া/লঞ্চ ঘাট/মীরগঞ্জঘাটের উন্নয়ন।

১৮। বাবুগঞ্জ বাজারে রাসত্মা ও ড্রেন নির্মাণ।

১৯। উপজেলা স্টেডিয়াম উন্নয়ন ,উঁচুকরা/বিভাগীয় স্টেডিয়াম বাবুগঞ্জে নির্মাণ।

২০। বাবুগঞ্জ থানায় নতুন গাড়ী সরবরাহ।

২১। বাবুগঞ্জ হতে বাহেরচর হাসপাতালে যেতে নদীতে ব্রিজ নির্মাণ।

২২। খাবার পানির জন্য উপজেলায় ১০০০টি গভীর নলকহপ স্থাপনের প্রকল্প গ্রহণ।

২৩। Civil Aviation স্কুল প্রতিষ্ঠা।

২৪। মিরগঞ্জ ঘাট থেকে দোয়ারিকা ব্রিজ পর্যমত্ম নদী শাসন (ফরিদগঞ্জ মাদ্রাসা, আবুলকালাম ডিগ্রি কলেজ, চরসাধুকাঠী মাদ্রাসা, সৈয়দ মোষারফ-রাশিদা একাডেমী, বিমানবন্দর পর্যমত)।

২৫। মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিসৌধ নির্মাণ ইত্যাদি।

 

    উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জনাব মোঃ বাকাহীদ হোসেন, বাবুগঞ্জ, বরিশাল উল্লিখিত বিষয়ের কার্যক্রম বাস্তবায়নের নিমিত্তে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও মাননীয় এমপির নিকট জোর সুপারিশসহ বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়।

 

   মাননীয় সংসদ সদস্য এ্যডভোকেট টিপু সুলতান সভায় বলেন নির্বাচনের পর এই প্রথম আনুষ্ঠানিকতা হয়েছে। মন্ত্রী মহোদয়কে এই  প্রথমেই পেয়েছি। এজন্য সকলকে ধন্যবাদ জানানো হলো। তিনি বলেন দেহেরগতি মাত্র ০৩টি রাসত্মা আছে। রাস্তঘাট নেই। হাসপাতালে এম্বুলেন্স নেই। একই জায়গায় বার বার প্রকল্প এসেছে তা কাম্য নয়। সমন্বয় হীনভাবে কাজ করা হলে ভোগামিত হবে। সমন্বয় থাকা অত্যমত জরুরী। যে সকল দায়িত্ব দিয়েছেন তা রক্ষা করার চেষ্টা করা হবে। চেষ্টা করা হবে দাবী দাওয়া বাস্তবায়নের এই বলে তিনি তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

 

    মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়  সকলকে শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন সকল উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে তাঁর সহযোগিতা থাকবে। এ অঞ্চলের উন্নয়নের ক্ষেত্রে অগ্রগন্য ভূমিকা থাকবে। স্থানীয় সরকার ব্যবস্থাটি খুব গুরুত্বপূর্ন। বাস্তবয়নে এগুতে উপজেলা পরিষদগুলো কার্যকর ভূমিকা রাখবে।ক্ষমতায়ন আয় বৃদ্ধি নিজস্ব গতিতে করতে হবে। পারস্পারিক সম্পর্ক রাখতে হবে। নয়ত সঠিকভাবে পরিষদ চলবে না। সম্পর্ক এবং পরিকল্পিতভাবে সুসম একটি প্রক্রিয়া উন্নয়নের প্রক্রিয়ার সাথে যুক্ত থাকবেন বলে তিনি আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি বলেন এলাকায় ইতোমধ্যে নিম্নলিখিত কার্যক্রম সম্পন্ন/প্রক্রিয়াধীন আছে।

১। হাসপাতালে ১০.০০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে।

২। ১১ টি ভবন করা হয়েছে।

৩। ৭২ টি মসজিদ করা হয়েছে।

৪। ১০ কোটি টাকার রাসত্মা কালভার্ট করা হয়েছে।

৫। নদী ভাঙ্গন রোধের জন্য ৩.০০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে।

   তিনি বাবুগঞ্জের সংসদ সদস্যকে সকল কর্মকান্ডে সহযোগিতা করার জন্য বলেন। তিনি আরো বলেন আগামী ১ মাসের মধ্যে ডাকবাংলোর ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পর্যটনের ব্যাপারে ইতোমধ্যে ব্যপক আলোচনা হয়েছে। বিমান বন্দর বৃদ্ধি করা হবে। মূল রাস্তার ব্যাপারে তিনি বলেন মূলাদির অংশের টেন্ডার হয়েছে। বাবুগঞ্জের রাস্তাও টেন্ডারের জন্য প্রক্রিয়াধীন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

     চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ বলেন দক্ষিণ অঞ্চলের কৃতি সমতান তথা বার বার এমপি নির্বাচিত হওয়া বাবুগঞ্জের সমতান  বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী জনাব রাশেদ খান মেনন এমপি বাবুগঞ্জের কর্ণধার হিসেবে মাধবপাশা দুর্গাসাগর দিঘীকে পর্যটন হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন ও পর্যটনের উন্নয়নমূলক কার্যক্রম শুরু করার জন্য ৬.০০ কোটি টাকার বরাদ্দ করেছেন। তিনি বলেন মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও সংসদ সদস্য মহোদয় এ্যাডভোকেট টিপু সুলতান-এর উপজেলা পরিষদ সভায় আসার জন্য বড় কৃতজ্ঞ ও গর্বিত। তিনি বাবুগঞ্জের পক্ষ থেকে তাঁদেরকে আমতরিকভাবে শুভেচ্ছা  ও অভিনন্দন জ্ঞাপন করেন। বাবুগঞ্জের উন্নয়নের জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও মাননীয় সংসদ সদস্যের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়সহ সকলের সুস্বাস্থ্য কামনায় তাঁর বক্তব্য শেষ করেন।

 

 

 

 

           পরিশেষে আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার কার্যক্রম সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়

                                                                                                                                     ( সুলতান আহমেদ খান )

                                                                                      উপজেলা চেয়ারম্যান

                                                                                                 ও

                                                                                              সভাপতি

                                                                                      উপজেলা পরিষদ কমিটি

                                                                                          বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

 

 

স্মারক নং- উনিঅকা/বাবু/ ২০১৪-              /১(৩৫)                                                              তারিখ - ২৫/০১/২০১৪ খ্রিঃ।

 

১। মাননীয় সংসদ সদস্য - ১২১, বরিশাল - ০৩ ।

২। সচিব,স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্থানীয় সরকার, পল্লী ও সমবায় মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

৩। কমিশনার, বরিশাল বিভাগ, বরিশাল  ।

৪। জেলা প্রশাসক, বরিশাল।

৫। চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

৬। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

৭। উপজেলা .................................................অফিসার, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

৮। চেয়ারম্যান ............................................ইউপি, বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

৯। জনাব..................................................বাবুগঞ্জ, বরিশাল।

       

                                  (মোঃ বাকাহীদ হোসেন

উপজেলা নির্বাহী অফিসার                                                                                   বাবুগঞ্জ, বরিশাল।